Wednesday, June 19, 2024
Home Blog Page 3

দশম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে শ্রী গনেশ জ্যোতিষ কেন্দ্রে হতে চলেছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

News hungama:

 

‘শ্রী গণেশ জ্যোতিষ কেন্দ্র’ র দশম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে আগামী ২১ এপ্রিল রবিবার, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে নাচ ও গানের পাশাপাশি থাকবে জ্যোতিষ নিয়ে আলোচনা। সেই সঙ্গে থাকছে গুণীজন সংবর্ধনা।

১৭ এপ্রিল বুধবার, হাওড়ার শালকিয়ায়, শ্রী গণেশ জ্যোতিষ কেন্দ্রের কার্য্যালয়ে আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে সংস্থার কর্ণধার বৈদিক জ্যোতিষ বিশেষজ্ঞ, ডঃ নীলাদ্রি নারায়ণ বসু একথা জানান।

তিনি বলেন “স্থানীয় শিল্পীদের সুযোগ দেওয়া ও নতুন শিল্পীর প্রতিভার বিকাশই আমাদের লক্ষ্য। যে সমস্ত শিল্পী প্রতিষ্ঠিত হওয়ার জন্য লড়াই করে চলেছেন, তাঁদের পাশে দাঁড়ানোর প্রয়াস আমাদের এই অনুষ্ঠান। শালকিয়ার বেনারস রোডে, ‘অমরদীপ সব পেয়েছির আসর’ – এর মাঠে এর জন্য আন্তর্জাতিক মানের স্টেজ তৈরি করা হবে। এই স্টেজে পারফর্ম করলে শিল্পীদের আত্ম বিশ্বাস বাড়বে।”

কলকাতায় লাইমলাইট ল্যাব গ্রোন ডায়মন্ডের গ্র্যান্ড স্টোর লঞ্চ অনুষ্ঠানে আদাহ শর্মা*

News Hungama:

কলকাতা, ১৭ এপ্রিল, ২০২৪: ভারতের বৃহত্তম সিভিডি ডায়মন্ড জুয়েলারি ব্র্যান্ড লাইমলাইট ডায়মন্ডস মাত্র ১৫ মাসের ব্যবধানে কলকাতায় তাদের দ্বিতীয় স্টোর লঞ্চ করতে পেরে আনন্দিত৷ কলকাতার কাঁকুড়গাছির গুঞ্জন এলাকার কেন্দ্রে খুলেছে এই নতুন দোকান। লাইমলাইটের নতুন স্টোর লঞ্চ করলেন ‘দ্য কেরালা স্টোরি’ খ্যাত জনপ্রিয় বলিউড অভিনেত্রী আদাহ শর্মা।

কাঁকুড়গাছিতে ৫০০ বর্গফুট জায়গা জুড়ে বিস্তৃত স্টোরটি ভারত জুড়ে তার শাখা প্রসারিত করার জন্য লাইমলাইটের যাত্রায় আরেকটি উল্লেখযোগ্য মাইলফলক উপস্থাপন করল। গত দুই বছরে, ব্র্যান্ডটি দ্রুত বৃদ্ধি পেয়েছে এবং মুম্বাই, কলকাতা, দিল্লি, জয়পুর, সহ বারাণসী, হায়দ্রাবাদ, ব্যাঙ্গালোর, চেন্নাই ইত্যাদি ২৫টিরও বেশি শহর জুড়ে ১০+ স্টোর, ৪০+ শপ-ইন-শপ সহ এলজিডি জুয়েলারির জন্য দেশে সবচেয়ে বেশি পৌঁছেছে। ব্র্যান্ডটি দ্রুত নিজেকে সলিটায়ার জুয়েলারির চূড়ান্ত গন্তব্য হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছে। এই প্রতিষ্ঠানটি সলিটায়ার নেকলেস, ব্রেসলেট এবং কানের দুলের একটি দুর্দান্ত সংগ্রহ নিয়ে মেলে ধরেছে যা একটি নতুন যুগের প্রযুক্তি এবং ঐতিহ্যবাহী সূক্ষ্ম গহনার নিখুঁত মিশ্রণকে প্রতিফলিত করে।

দোকানের খুচরো ডিজাইন ব্র্যান্ডের নীতির পরিপূরক করার জন্য যত্ন সহকারে তৈরি করা হয়েছে, যা কমনীয়তা, আধুনিকতা, স্থায়িত্ব এবং বিলাসিতাকে প্রকাশ করে। অভ্যন্তরে, ব্র্যান্ডটি একটি পরিষ্কার এবং ন্যূনতম সাজসজ্জাকে চিত্রিত করে যা তাদের ল্যাব-উত্থিত হীরের গয়নার সৌন্দর্যকে বিকশিত করে। ক্রেতারা হলোগ্রাম ডিসপ্লে এবং একটি অনন্য 3D অভিজ্ঞতার সাথে তাদের কেনাকাটাকে স্মরণীয় করে তুলেছে।

এছাড়াও, ব্র্যান্ডের গ্রাহক পরিষেবাগুলির মধ্যে রয়েছে ডিজাইন কাস্টমাইজেশন, লাইফটাইম বাইব্যাক এবং ১০০% এক্সচেঞ্জ গ্যারান্টি যা স্টোরে আসা ক্রেতাদের মধ্যে আরও আস্থা ও বিশ্বাস তৈরি করবে।

তার উচ্ছ্বাস প্রকাশ করে, লাইমলাইট ডায়মন্ডসের প্রতিষ্ঠাতা ও এমডি পূজা শেঠ মাধবন বলেছেন, “ফোরাম মলে আমাদের প্রথম স্টোরে গ্রাহকদের দুর্দান্ত প্রতিক্রিয়া পাওয়ায়, শহরে আমাদের নাগাল প্রসারিত করার জন্য একটি দ্বিতীয় স্টোর খোলার ইচ্ছে ছিল। এই দ্বিতীয় স্টোরটি খোলার ক্ষেত্রে বিখ্যাত জ্যাশ জুয়েলার্সের অংশীদারিত্ব এই শাখার মান আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। শুধুমাত্র আমাদের সম্পর্ককে জোরদার করতে এবং ব্র্যান্ডের প্রতি তাদের আস্থাকে আরও ভরসাযোগ্য করতে আমরা বিশ্বাস করি যে কাঁকুড়গাছি স্টোরটি শহরে আমাদের উপস্থিতি আরও শক্তিশালী করবে এবং আমরা দেখতে চাই এটিও সমান সাফল্য সহকারে আমাদের অংশীদারদের সাথে পূর্বাঞ্চলে আমাদের এগিয়ে রাখছে।”

লাইমলাইটের আঞ্চলিক অংশীদার, জ্যাশ জুয়েলার্সের মিঃপঙ্কজ জালান, বলেন, “এটি কলকাতার লাইমলাইট ডায়মন্ডসের সাথে আমাদের দ্বিতীয় অংশীদারিত্ব এবং আমরা এটি নিয়ে যথেষ্ট রোমাঞ্চিত ৷ আমাদের প্রথম স্টোরের সাফল্যের পর, আমরা এখন কাঁকুড়গাছিতেও আমাদের গ্রাহকদের সর্বোত্তম পরিষেবা প্রদানের জন্য উন্মুখ। আমরা আগামী বছরের মধ্যে পূর্ব ভারতে ১০টি নতুন স্টোর খোলার পরিকল্পনা করছি।”

ব্র্যান্ডের সংগ্রহের দিকে নজর দিয়ে আদাহ শর্মা বলেন, “আমি এই দোকান এবং ল্যাবে উত্থিত হীরের গয়নাগুলি দেখে মুগ্ধ। এগুলি ভারতে তৈরি এবং আমি মনে করি প্রতিটি ভারতীয় মহিলা এই হীরে পরার জন্য গর্বিত হবেন- সত্যিই এটি একটি সাহসী পদক্ষেপ৷ আমি লাইমলাইট টিমকে কলকাতায় এই কনসেপ্ট নিয়ে আসার জন্য অভিনন্দন জানাই এবং তাদের শুভকামনা জানাই।”

ব্র্যান্ডের গুরুত্ব শুধুমাত্র সারা দেশে স্টোরের উপস্থিতিতেই বিচার করা হয় না বরং ক্রেতার সংগ্রহ এবং বিক্রির প্রতিক্রিয়াতেও প্রতিফলিত হয়। FY24-এ, লাইমলাইট জাতীয়ভাবে INR ৮০ কোটির বেশি বিক্রির রেকর্ড করেছে, যা গত বছরের তুলনায় ২৩০% বেশি। এর মধ্যে, ব্র্যান্ডেড বিক্রি বছরে তিনগুণ বেড়েছে যার ফলে গ্রাহকদের সাথে সরাসরি সম্পৃক্ত হওয়ার এবং এর খুচরো উপস্থিতি প্রসারিত করার জন্য কোম্পানির আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধি পেয়েছে। ক্রমবর্ধমান বাজারে উপস্থিতির সাথে, ব্র্যান্ডটি তাদের গ্রাহক বেসকে শক্তিশালী করে চলেছে, এবং তাদের একটি দুর্দান্ত পরিসর অফার করছে যা সলিটায়ার হীরার গহনায় আগে কখনও দেখা যায়নি।

নতুন লাইমলাইট ডায়মন্ডস স্টোরে যান এবং হীরের জাদু অনুভব করুন, যেমনটি আগে কখনও হয়নি।

No matter the attempts, we will not let Manipur break apart: Union Home Minister Amit Shah

News Hungama:

Union Home Minister and Minister of Cooperation Amit Shah, engaged in preparations to secure a resounding victory in the Lok Sabha elections and to make Modi the Prime Minister for the third time, has been addressing public rallies across the country. Amit Shah, while addressing a massive public gathering in Imphal, Manipur, targeted the opposition, which repeatedly conspires to set Manipur on fire. Shah conveyed the message of safeguarding the unity and integrity of the country, saying, “No matter how much force is applied, we will not let Manipur break apart.”

History bears witness that Congress divided India into two pieces. For decades after independence, Congress ruled the country. But they separated the entire Northeast from the rest of the country. For years, the Northeast endured separatism, extremism, poverty, hunger, and ethnic violence. It is the same Congress that now talks about dividing India into two parts – North India and South India. The people of the country now know the truth about Congress, it has become clear to the people of Manipur that in the upcoming elections, there are those who want to break Manipur apart, on one side and those who want to keep Manipur united on the other.

Under the leadership of Modi and the skilled guidance of Amit Shah, today the Northeast is moving towards peace and development, rewriting a new story. The distance between the Northeast and Delhi has decreased during the Modi era. Morethan 10 peace agreements have been signed in the Northeastin the last 10 yearsunder which more than 9,000 extremists have surrendered and have joined the mainstream. Manipur was made a blockade state during the Congress era. Drug trafficking, illegal infiltration, and extremism became a curse for Manipur. Meanwhile, work is underway to construct a border with Myanmar. The decision to impose a ban on the Free Movement Regime to curb infiltration is also unprecedented. Every child of the Northeast knows that as long as the duo of Modi and Shah is there, no one can dareto disintegrate Manipur. The priority of the Bharatiya Janata Party, under the policies of Prime Minister Narendra Modi and Home Minister Amit Shah, is to ensure peace in Manipur and the entire Northeast. That is why Manipur, which was burning in violence during the Congress government, has succeeded in establishing peace today.

TheModi government is outweighing the decades-long rule of the Congress governmentin every field. In such a scenario, it is certain that the lotus will bloom beyond 400 in the upcoming Lok Sabha elections. When Amit Shah, the Chanakya of Indian politics, gets on the field, the opposition succumbs to defeat even before the elections. Faced with the Modi magic and the Shah factor, it seems clear that Congress’ fate is sealed in 2024. With Amit Shah’s track record of redefining Indian politics and achieving continuous victories in elections, it is worth acknowledging that the Bharatiya Janata Party’s victory with a resounding majority and Narendra Modi’s third term as Prime Minister is inevitable.

মুক্তি পেল বাংলা কাহিনী চিত্র “দুগ্গার” পোস্টার ও টিজার

News Hungama:

(১৫ এপ্রিল ‘২৪):- মুক্তি পেল ‘পৃথ্বী ফিল্মস’ নিবেদিত, কৃষ্ণা গুপ্তা প্রযোজিত এবং এম সেলিম পরিচালিত বাংলা কাহিনীচিত্র ‘দুগ্গা’-র পোস্টার ও টিজার।

আজ সায়াহ্নে কোলকাতার ‘অ্যাকাডেমী অব ফাইন আর্টস’-এ আয়োজিত এক সাংবাদিক সম্মেলনে প্রকাশিত হল ‘দুগ্গা’-র পোস্টার ও টিজার।

সংবাদমাধ্যমের সাথে কথা বলতে গিয়ে কাহিনীচিত্রের পরিচালক এম সেলিম জানিয়েছেন, “গ্রামের এক মেয়ের বিবাহ, বিবাহোত্তর জীবনে হাতবদল হয়ে নিষিদ্ধপল্লিতে পৌঁছানো ও পরবর্তী সময়ে সেই মেয়ের পলায়ন এবং প্রতিষ্ঠা লাভের কাহিনী নিয়েই নির্মিত হবে পৌনে দুঘণ্টার কাহিনীচিত্র ‘দুগ্গা’। সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে এই বছরের মহালয়ার আগে মুক্তি পাবে এই কাহিনীচিত্র।”

এই ছবির চিত্রনাট্য লিখেছেন সুরজিৎ। অভিনয় করেছেন নবাগতা অনিন্দিতা জানা, এহসান খান, মনোজিৎ বড়াল, ঈশিতা দাস, অনসূয়া সামন্ত, গোলাম মহম্মদ প্রমুখ।
তিনটে গান থাকছে এই চলচ্চিত্রে। গান লিখেছেন সৌরভ দে। সুর দিয়েছেন প্রীতম দেব।

বলে রাখা ভালো, পরিচালক এম সেলিম-এর এটাই প্রথম চলচ্চিত্র।

Eco Smart City, Kolkata, Celebrates 11th Anniversary: A Landmark in Smart Township Development

News hungama:

Kolkata, India – April 14, 2024 – Today marks a significant milestone for Eco Smart City, Kolkata, as it celebrates its 11th anniversary since inception on the auspicious occasion of Poila Boisakh. Developed by MAA LAND GROUP and marketed by Novesta Group, Eco Smart City stands as a testament to innovative urban planning and sustainable development.

Eco Smart City is not just a township; it represents the epitome of modern living with state-of-the-art amenities, cutting-edge infrastructure, and a commitment to environmental sustainability. From advanced drainage systems to efficient waterlines and electricity grids, every aspect of the township is designed to enhance the quality of life for its residents.

Mr. SK Giri,
Chief Managing Director
of Maa Land Group, expressed his excitement about the upcoming milestones, stating, “I will hand her the keys of the bungalow from 27 June 2026.” This statement underscores the commitment of the team towards timely delivery and excellence in execution.

Mr. Souvik Kula, Managing Director of Novesta Group, emphasized the scale and ambition of the project, stating, “In the coming two years, Eco Smart City will emerge as the largest township project in Kolkata.” With expansive spaces, recreational facilities including swimming pools, and premium amenities, Eco Smart City aims to redefine urban living in the region.

Over the past 15 months, dedicated teams of workers have toiled day and night to bring the vision of Eco Smart City to life. As a result, the township has witnessed remarkable progress, culminating in the upcoming inauguration of the swimming pool on June 27, 2024.

Mr. SK Giri added, “Once this project is launched, you will need more than just a car to explore the vast expanse of Eco Smart City.” Indeed, the sheer scale of the project is awe-inspiring, with phase 1 and phase 2 set to include not only residential spaces but also educational institutions and a diverse range of amenities.

For more information about Eco Smart City and its offerings, please visit www.ecosmartcity.in.

As Eco Smart City celebrates its 11th anniversary, it reaffirms its commitment to excellence, innovation, and sustainability in urban development.

Communist govt gave poverty, hunger, and handed weapons to youth, while Modi govt handed laptops to them

News hungama:

Union Home Minister and Minister of Cooperation and star campaigner of the Bharatiya Janata Party Amit Shah, amidst the fervour of the Lok Sabha elections is vigorously interacting with the public during rallies and roadshows. With the intent of ensuring victory and making Modi ji the Prime Minister for the third time, Amit Shah has joined the battlefield. In this sequence, while addressing a massive public gathering in the East Lok Sabha seat of Tripura, Shah stated, “The communist government has always given poverty, hunger, and weapons to the people of Tripura, whereas the Bharatiya Janata Party-led Narendra Modi government has given laptops to these youth.”

It has been proven in history that wherever communists have formed the government, they only created poverty, hunger, bad health conditions, and a lack of education. On the other hand, during the Modi government within 10 years, poverty has come to an end. Today in the Amrit Kaal, each poor is getting benefits of schemes like free health insurance of up to 5 lakhs and free ration. A conducive environment for better education for the youth has been created.

Under the leadership of Prime Minister Modi and Amit Shah, through 10 peace agreements over 10,000 youth have joined the mainstream. A Tripartite agreement, to resolve problems of the indigenous tribes, was signed with the TIPRA, Tripura state government central government in the presence of Shah, who is the key person responsible behind India getting a new political identity.

People of the country are aware that the Modi government has worked across the country to honour, secure, and ensure inclusive development. However, for years, the Congress Party and communist government ruling the country never wished well for the tribals. Modi ji, who is practicing the politics of Antyodaya for the first time after independence, honoured Odisha’s poor tribal daughter, Droupadi Murmu, by making her the President of the country, showing respect to the tribals. Today, the Modi government is establishing a museum in the memory of those tribals who sacrificed everything for the country. Besides, keeping the name of the Tripura Airport after Maharaja Bir Bikram Manikya, the Modi government has also installed Maharaja’s statue there. Tribal literary figures and folk writers who enhance the dignity and honor of tribals, Benichandra Jamatia and Satyaram Riyaang, have been honored with the Padma awards by Narendra Modi. There used to be only one highway in Tripura during the communist government, while today, there are nine highways under the Narendra Modi government. Tripura has transitioned massively in the last decade.
Until 2018, Tripura, the stronghold of the Left, which no one could pierce for 25 years, was dismantled with the slogan of ‘Chalo Paltai’ by the magical duo of Modi and Shah. Where the BJP’s position was zero, there too the duo of Modi and Shah has journeyed to the peak. The glimpse of just 5 years of BJP rule tells the story of Tripura’s development and proves the Communist as criminal and Congress as corrupt. The Modi magic and Shah factor make it cleat that in 2024, with more than 400 seats, Modi ji will become the Prime Minister for the third time.

কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ভবিষ্যতের সম্ভাবনার দরজা খুলে দেবে: ডঃ সুনীল কুমার শর্মা

News Hungama:

কলকাতা: কবি ও প্রযুক্তিবিদ ডক্টর সুনীল কুমার শর্মার বাণী প্রকাশন থেকে প্রকাশিত প্রযুক্তিভিত্তিক বই ‘কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা: এক অধ্যয়ন’ এবং ‘চ্যাটজিপিটি: এক অধ্যয়ন’ নিয়ে শনিবার একটি বই আলোচনা ও কবিতা সন্ধ্যার আয়োজন করা হয়েছিল। ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেশন্সে (আইসিসিআর) রবিশঙ্কর উপাধ্যায় স্মৃতি সংস্থার দুটি অধিবেশনে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে দেশের বিশিষ্ট টেকনোক্র্যাটরা তাদের মতামত উপস্থাপন করেন, এবং কবিতা সন্ধ্যায়, বিখ্যাত এবং তরুণ হিন্দি কবিরা তাদের কবিতা দিয়ে শ্রোতাদের মন্ত্রমুগ্ধ করেন।

বইয়ের আলোচনা সভায় অধ্যাপক ড. এসপি মুখার্জি (শতবর্ষের অধ্যাপক, পরিসংখ্যান বিভাগ, কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়) এর সভাপতিত্বে অধ্যাপক ড. আর. এস. সিং (আচার্য, কেমিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং, আইআইটি-বিএইচইউ), অধ্যাপক ড. চিত্রা সিং (অধ্যাপক, রসায়ন, আঞ্চলিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান, ভোপাল), ইয়াতীশ কুমার (লেখক এবং প্রধান কর্মশালা ব্যবস্থাপক, লিলুয়া/ইস্টার্ন রেলওয়ে), ড. ঋষি ভূষণ চৌবে (সহকারী অধ্যাপক, হিন্দি বিভাগ, প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়, কলকাতা), দীনেশ চন্দ্র পান্ডে (সিনিয়র অডিটর, সিএজি কলকাতা) এবং বইটির লেখক ডক্টর সুনীল কুমার শর্মা বক্তব্য রাখেন। ডাঃ সুনীল কুমার শর্মা বলেন, ‘কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ভবিষ্যতের সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচন করবে। আমাদের দেশে ডেটা সমৃদ্ধ হওয়ার পাশাপাশি AI এর মাধ্যমে এর সমস্যা সমাধানের প্রয়োজনীয় প্রযুক্তিগত ক্ষমতা রয়েছে। এই এআই বিপ্লব সঠিক পথে কাজ করার জন্য, একটি কার্যকর কাঠামো প্রয়োজন।

বই সংক্রান্ত আলোচনা শেষে আয়োজিত কবিতা সন্ধ্যায় প্রবীণ লেখক ও সমালোচক অধ্যাপক ড. অরুণ হোতার পরিচালনায় প্রফেসর ড. চিত্রা সিং, ইয়াতীশ কুমার, নিশান্ত, প্রফেসর ড. আর. এস. সিং, ডাঃ সুনীল কুমার শর্মা, সঞ্জয় রায়, রাজ্যবর্ধন, অনিলা রাখেচা কবিতা আবৃত্তি করেন। এই অধিবেশনটি পরিচালনা করেন কবি আনন্দ গুপ্ত। রবিশঙ্কর উপাধ্যায় স্মৃতি সংস্থা, বারাণসীর পক্ষে অনুষ্ঠানটি সমন্বয় করেন ডঃ আদিত্য বিক্রম সিং।

Senco Gold & Diamonds launches Circle of Life-Bangle Festival 202.

News hungama:

Kolkata, April 12, 2024:  Leading jewellery retailer having over 80 years of legacy and with 158+ stores across India, Senco Gold & Diamonds is India’s 2nd most trusted brand in the category of jewellery at TRA’s Brand Trust Report 2024 for the 4th consecutive year, has announced the launch of its new Bangle Festival and offers to mark the auspicious occasion of Poila Boishak & Akshaya Tritiya, the festivals that are celebrated with great devotion across West Bengal & India respectively and is an auspicious time to buy gold and invest in other precious metals to bring home, good luck & prosperity.

 

Senco Gold & Diamonds is giving discounts to its esteemed customers from April 8th, 2024 – May 12th 2024 of upto 60% in making charges on Diamond Jewellery & Polki Jewellery and upto 5% discount on Diamond Value pan India. The Brand is also giving upto 25% discount on making charges and competitive gold rate offers.

 

As a part of this offer, customers can choose from exclusive jewellery of more than 2000 + designs, and new products in everyday wear starting from Rs 15000-Rs 2,00,000, specially crafted by Senco Gold & Diamonds’ skilled karigars to celebrate Bangle Festival ; designs starting from as low as Rs. 8,000 matching every budget. For more details of discounts please visit us at https://sencogoldanddiamonds.com/ . With its vast collection of artistic bangles and bracelets, Senco Gold & Diamonds takes pride in celebrating the hands that create good fortune through their intricate karigari, adding an extra touch of prosperity to those who adorn them.

 

 

Ms. Joita Sen, (Director & Head of Marketing & Design, Senco Gold & Diamonds) said, ” We are happy to launch Bangle Festival for our esteemed customers and to mark the occasion, we have also launched our new campaign # Heirlooms of Legacy-Celebration of Modernity, which is an expression of love, towards yourself or a beloved, transcending every stage of life, and cherished for generations. There’s perhaps no heirloom precious as love. Like the love of a grandmother as she slides a tiny gold bangle onto her grandchild’s wrist. Or that of a mother saving her favourite kada for her daughter’s wedding. It’s visible in the modern, dainty bracelet that a father picks as his daughter’s graduation gift. Or even the simple yet aesthetic bangle you buy for yourself with your first salary. Senco Gold & Diamonds celebrates this circle of life and legacy of love with our Bangle Festival, where our exquisite craftsmanship meets modern design sensibilities which makes these heirlooms truly timeless!’.

 

About Senco Gold Ltd-

 

Senco Gold & Diamonds is a leading pan-India jewellery retailer with a legacy of more than eight decades and the largest jewellery retail player in eastern India based on number of showrooms. Senco Gold & Diamonds has been rated as 2nd Most Trusted Jewellery Brand 4th year in a row by TRA and recognized amongst Most Desired Jewellery Brand by TRA in 2024 much ahead of most of our peers.  Senco Gold & Diamonds credit rating has been upgraded by ICRA for its Fund based Working capital facilities [ICRA]A and [ICRA]A2+ with “Stable” Outlook for Long term and short term respectively. Senco has also been Certified as Great Place to Work (GPTW) for the 2nd year in a row. Senco Gold & Diamonds secured 78th ranking in the recent Global Luxury Goods list by Deloitte.

Senco Gold & Diamonds has over 158+ showrooms spread across India with a mix of Own and Franchisee model and having various formats like Classic, D’signia, Everlite, Modern, Sennes and House of Senco to cater to various customer segments. The D’Signia showroom format offers a premium jewellery retail shopping experience to its connoisseur customers while Everlite offers lightweight, modern, and trendy collections. The recently launched Sennes Format caters to lifestyle accessory segments like Labgrown Diamond and Leather Accessories

Senco Gold & Diamonds offers an extensive range of jewellery, including gold, diamond, Polki, Platinum, Kundan, Jadau, silver, as well as precious and semi-precious stones. With a catalogue offering more than 130,000 designs for gold jewellery and more than 72,000 designs for diamond jewellery, Senco offers a large variety of designs of handcrafted jewellery, most of which are designed in-house by its designers in close collaboration with skilled local karigars in Kolkata and across the country. Senco Gold & Dimonds brand portfolio includes “Everlite” focused on lightweight jewellery; “Gossip” the silver and costume jewellery brand; and “Aham” catering to men. We also have Vivaha and Rajwada collections, which are a premium wedding jewellery range. We have recently launched “Sennes” Brand for leather bags and accessories as well. Our jewellery collection mark celebration of heritage, craftsmanship and innovation in jewellery design.

কোলকাতায় শুরু হল ‘পেন মহোৎসব

News hungama:

কলকাতা ( ১২ এপ্রিল ‘২৪ ) : ‘কিশলয় ইভেন্টস্’ ও ‘পেন ক্লাব’ এর উদ্যোগে আইসিসিআর – এর নন্দলাল বসু গ্যালারিতে শুরু হলো তৃতীয় পেন মহোৎসব। আজ অপরাহ্নে এই উৎসবের সূচনা করেন সাহিত্যিক আবুল বাশার, সাংবাদিক ও সাহিত্যিক প্রচেত গুপ্ত, লেখিকা নন্দিনী নাগ, অভিনেতা সুপ্রিয় দত্ত, অধ্যাপক অভিজিৎ বন্দোপাধ্যায় প্রমুখ।

পেন মহোৎসবে মোট ২৪ টা স্টল রয়েছে। দেশী ও বিদেশী মিলিয়ে ৬০ টা ব্র্যান্ডের প্রায় ২০০০ রকমের ফাউন্টেন পেন অর্থাৎ ঝর্ণা কলম রয়েছে এখানে। ১৫০ টাকা থেকে শুরু করে সর্বোচ্চ ১০ লক্ষ টাকা মূল্যের ফাউন্টেন পেন পাওয়া যাচ্ছে এই মেলায়।

 

‘পেন ক্লাব’ এর কর্ণধার সায়ক আঢ্য জানিয়েছেন, “কালির কলমের ব্যবহার ফিরিয়ে আনতেই আমাদের এই উদ্যোগ।”

‘কিশলয় ইভেন্টস্ অ্যান্ড অ্যাডভারটাইজমেন্ট’ এর কর্ণধার প্রসেনজিৎ গুছাইত বলেন, “পেন মহোৎসব গত দু’ বছরে মানুষের মধ্যে ঝর্ণা কলমের প্রতি আগ্ৰহ বাড়াতে অনেকটাই সক্ষম হয়েছে।”

 

অনুষ্ঠানে ‘দোয়াত’ নামাঙ্কিত কলমের কালির উদ্বোধন হয়।

পেন মহোৎসব চলবে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত।

অর্কিড দ্য ইন্টারন্যাশানাল স্কুলের শিক্ষার্থীরা সাইবার সিকিউরিটির 4টি নিয়ম সম্পর্কে শিখেছে: নিরাপত্তা, সুরক্ষা, সুস্থতা এবং গোপণীয়তা

News hungama:

অর্কিডস দ্য ইন্টারন্যাশানাল স্কুলের শিক্ষার্থীরা ভারতের অন্যতম প্রধান স্কুল চেইন, আজকে সাইবার আইনি প্রশিক্ষণ এবং পরামর্শ প্রতিষ্ঠান -এ বিশেষজ্ঞদের দ্বারা পরিচালিত একটি কর্মশালায় সাইবার নিরাপত্তা এবং কীভাবে অনলাইন হুমকি মোকাবিলা করা যায় সেসম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ জ্ঞান লাভ করলো।


কর্মশালায় শিক্ষার্থীদের নেটওয়ার্ক সিকিউরিটি, ডেটা সুরক্ষা, হুমকি সনাক্তকরণ এবং প্রতিক্রিয়া, ঘটনা ব্যবস্থাপনা এবং সম্মতি বিধিগুলির উপর একটি ক্রাশ-কোর্স করানো হয়। কর্মশালায় সিস্টেম এবং ডেটা সুরক্ষিত করার সর্বোত্তম অনুশীলন যেমন শক্তিশালী পাসওয়ার্ড প্রয়োগ করা, এনক্রিপশন ব্যবহার করা এবং নিয়মিত সফটওয়্যার এবং সিকিউরিটি প্যাচ আপডেট করা অন্তর্ভুক্ত হয়েছে।

অধিবেশনে তার চিন্তাভাবনা জানাতে, সাইবার আইনি প্রশিক্ষণ এবং পরামর্শ প্রতিষ্ঠান -এর ডাইরেক্টর মিস্টার রাজর্ষি রায় চৌধুরী জানান, “এই প্রোগ্রামের মাধ্যমে আমাদের লক্ষ্য সাইবার নিরাপত্তা শিক্ষার জন্য প্রচলিত পদ্ধতির বাইরে প্রসারিত। আমরা ছাত্ররা সাইবার নিরাপত্তাকে কীভাবে দেখি – শুধুমাত্র একটি প্রযুক্তিগত বিষয় হিসাবে নয়, তবে আমরা পুনরায় সংজ্ঞায়িত করতে চাই। একটি আকর্ষক এবং প্রাসঙ্গিক অভিজ্ঞতা হিসাবে। আমাদের কর্মশালার মাধ্যমে, আমরা সাইবার নিরাপত্তার জন্য একটি প্রকৃত প্যাশন গড়ে তোলার লক্ষ্য রাখি যা ব্যবহারিক প্রয়োগে স্পর্শ করার জন্য তাত্ত্বিক জ্ঞানকে ছাড়িয়ে যায়। উদ্ভাবনী শিক্ষণ পদ্ধতির ব্যবাহ করে, আমরা এর গুরুত্ব এবং বাস্তব-বিশ্বের প্রভাব প্রদর্শন করতে চাই সাইবার সিকিউরিটি, শিক্ষার্থীদের অনুপ্রাণিত করে এটিকে আজীবন আগ্রহ হিসাবে অনুসরণ করতে”।

এই সাইবার সিকিউরিটি কর্মশালাটি উদ্ভাবনী শিক্ষার প্রতি অর্কিডের নিবেদন এবং গতিশীল এবং সাইবার-সিকিউরিটি শিক্ষার পরিবেশের প্রতি তার নিবেদন প্রদর্শন করছে। ওয়েবেল থেকে দক্ষতা এনে, এই ইভেন্টের লক্ষ্য ছিল শিক্ষাবিদদের নতুন শিক্ষাদান পদ্ধতিগুলি অন্বেষণ করতে অনুপ্রাণিত করা যা ঐতিহ্যগত পদ্ধতির বাইরে যায়, শেষ পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের জন্য সামগ্রিক শিক্ষার অভিজ্ঞতা বৃদ্ধি করে।

অর্কিডস দ্য ইন্টারন্যাশানাল স্কুলের প্রিন্সিপ্যাল মিসেস বিদ্যুনমালা সালুঙ্কে, কর্মশালায় তার উত্সাহ প্রকাশ করে জানান, “এই উদ্যোগটি গতিশীল এবং আকর্ষক শিক্ষার পরিবেশ লালন করার জন্য আমাদের অঙ্গীকারের প্রমাণ হিসাবে দাঁড়িয়েছে। এটি শিক্ষাবিদদের উদ্ভাবনী সরঞ্জাম দিয়ে সজ্জিত করার মাধ্যমে ঐতিহ্যগত পদ্ধতির বাইরে চলে যায়। আমাদের শিক্ষার্থীদের সাফল্যে সরাসরি অবদান রাখা। কর্মশালার লক্ষ্য ছিল এমন একটি পরিবেশ গড়ে তোলা যেখানে শিক্ষার্থীরা কেবল শিক্ষা লাভ করে তাই নয় বরং তাদের শিক্ষামূলক যাত্রায় নতুন দিগন্ত অন্বেষন করে উন্নতি লাভ করে। এই ডিজিট্যাল যুগে, আমাদের লক্ষ্য হল শিক্ষার্থীদের উত্কর্ষ সাধনের জন্য প্রয়োজনীয় সম্পদ সরবরাহ করা এবং শিক্ষা ও প্রযুক্তির নিরন্তর পরিবর্তনশীল ল্যান্ডস্কেপকে আলিঙ্গন করা”।

কর্মশালাটি শিক্ষার্থীদের উপর একটি রূপান্তরমূলক প্রভাব ফেলেছিল কারণ এটি তাদের গুরুত্বপূর্ণ সিকিউরিটি সংক্রান্ত বিষয়গুলির উপর গভীর প্রশিক্ষণ প্রদান করে, তাদের অনলাইন হুমকিগুলির একটি বিস্তারিত উপলব্ধি এবং তাদের প্রশমিত করার জন্য প্রয়োজনীয় দক্ষতা প্রদান করে। শিক্ষার্থীরা সাইবার সিকিউরিটির গুরুত্ব সম্পর্কে উচ্চ সচেতনতা দেখিয়েছে, যেমন প্রায় অলঙ্ঘনীয় পাসওয়ার্ড ব্যবহার করা এবং সন্দেহজনক কার্যকলাপ থেকে সতর্ক থাকা। হ্যান্ড-অন ক্রিয়াকলাপ এবং সিমুলেশনগুলি পাঠকে আরও শক্তিশালী করেছে, শিক্ষার্থীদের দায়িত্বশীল ডিজিট্যাল নাগরিক হওয়ার ক্ষমতায়ন করেছে।